দোটানায় দুর্দশা

একটা পা রাস্তায়, আর একটা পা বাড়ির ছাদে,
শরীরটা দাঁড়িয়ে আছে, মাঝে মধ্যেই জলের মহাস্রোত
আসছে, ধাক্কা দিচ্ছে, শরীরটা দুলছে সেই সঙ্গে কাঁপছেও,
সামনেই কোনো কাঁচের দেওয়াল ভাঙলো বোধ হয়,
গুঁড়ো কাঁচ গুলো জলের সঙ্গে ভেসে আসছে,
সময় থাকলেও হাত দেওয়া যায় না  ,
মনে হয় শূন্যে নিজের অস্তিত্ব ভেসে আছে ,
হাত দিলেই রক্তের রং মাখিয়ে দিয়ে যাবে।।
জলের মধ্যে কাঁচ, করেছো কি?
কাছের মানুষকে না চেনার মতো ,
এ এক সর্বনাশ। উত্তাপ সেথায় ,
সর্বদা জেগে রোয়।।
অপরাজিতার রং দিয়েও ,
রক্তের রং ফ্যাকাসে করা যায় না।

©মাম্পি

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য