সাম্প্রতিক পোস্টগুলি

আরও দেখান
বেলা ফুরোলে

বাংলা কবিতা: বেলা ফুরোলে সব শান্ত, ভীষণ ক্লান্ত। সে-ও তো জানতো। শেষে অক্লান্ত।। শেষ প্রান্ত, শেষ প্রান্ত।। শান্তি হোক জন্ম-পরজন্ম। দৃষ্টি পাক, সৃষ্টি-অনাসৃষ্টি। আজ মাটির সাথে মিশে যাক। সবটুকু অশান্তি আর অনাবৃষ্টি।। ©মাম্পি মল্লিক…

সাধারণত

বাংলা কবিতা: সাধারণত একটা পৃথিবী বুকের ওপরে, মানুষ জন্ম হোক বা মৃত্যু, শরীরে থামে না কোনো প্রবাহ। নদীর যে পথে পলি পড়েছিলো, সে পথ ধরেই এসেছি, আবার ফিরেও যাবো। শুধু জানাবো না, ছেঁড়া ঘুম  আর, অবাস্তব ভালোবাসার কোনো ইতিহাস। একই বুকের…

শেষবারের জন্য

বাংলা কবিতা: শেষবারের জন্য এখনও ঘুম ভাঙেনি, রাতের গোঙানির সুর, কানে কিংবা চুলে জড়ানো। শেষবারের মতই মুখটুকু মনে আছে। খবরে কিংবা কাগজে আজও, জেগে আছে সোনালি স্বপ্নরা।। আজও শরীরে নদীর বয়ে যাওয়া, আঙুলে নিস্তব্ধতা।। ঝোড়ো হাওয়া, জরুরী ত…

অদ্ভুত

বাংলা কবিতা: অদ্ভুত সবদিক থেকে জোড়ালো, অর্ধবিন্দু পোড়ানো, স্বল্প কিন্তু আণবিক, তীব্র তবু মানবিক। আলোর গতি ধীরে খুব, সময় তবু অভিমুখ,  গলার কাছে বুজে যায়, চমক খুঁজে নিরুপায়। আমিও আজ অসহায়।। ©মাম্পি মল্লিক আমার লেখা আরো কিছু  বাংলা …

দিন-দুপুর

বাংলা কবিতা: দিন-দুপুর পায়ের কাছে একটা গভীর খাদ, একটা গভীর খাদ পায়ের কাছে। ত্রিকাল ভেঙে শেষটা মহাকাল, একটা মহাকাল, জেগেই আছে। অশনি পায়,সাংকেতিক এক ছাপ। একটা সংকেত লেগেই  থাকে। অশরীরীদের হলদেটে উত্তাপ, একটা উত্তাপ ঠোঁটের বাঁকে। গল…

এমনিই

বাংলা কবিতা: এমনিই জলের মাঝে সমস্তটাই থাকে, শহর ঘুমোয়, আঁধার জেগে থাকে। অসম্পৃক্ত উষ্ণ কোনো আঁচে, সম্পর্করা ছিটকে পড়ে আনাচে-কানাচে।। অলির তখন ফুরিয়ে যাওয়ার কথা, গলির তখন প্রিয় নীরবতা। জীবন তখন কৃষ্ণচূড়া এঁকে, একলা কাঁদে, চুপ করে …

সময় মাফিক

বাংলা কবিতা: সময় মাফিক   সময়ের দাম ঠিক কত দিতে পারেন? কত দিলে লাভ আর ক্ষতির সামঞ্জস্য হবে, টাকা আছে ভেসে, শহরের পথে-ঘাটে, হন্যে হয়ে ছুটেছে সকলে, আলো কিংবা অন্ধকারের মধ্যেই, ছোট-বড় পথ-ঘাট, হৈচৈ-নিস্তব্ধ, মানুষ বিক্রি করছে রকমারি আ…

আরও পোস্ট লোড করুন কোনো ফলাফল পাওয়া যায়নি