বৈপরীত্য

সাদা-কালো, শেষ-শুরু,খোঁজ-নিখোঁজ,
এমন কতই না বৈপরীত্যের বাস এই এক আকাশের নীচে।
কল্পনাদের রূপ দিতে দিতে আজ হঠাৎ এই স্থানে এসে,
দাঁড়াতে হবে ভাবা যায় নি। পুরোনো-নতুনের দ্বন্দ্বে হঠাৎ বৈপরীত্যের এমন আকস্মিক আবির্ভাব হয়েছে যে,
আমি আমার কল্পনাদের মাঝে পৌঁছতেই পারছি না।
ঘামে ভিজে যাওয়া জামাটার মধ্যেও আমি,
বৈপরীত্যকে আবিস্কার করেছি, জামাটার দুটো দিক,
উল্টো-সোজা দুটো দিকই যেন, 
আমার অস্তিত্বের বৈপরীত্য তুলে ধরছে।
ছুঁয়ে দেখলাম,এমন নিখুঁত সৃষ্টি আমাদের ঘিরে রেখেছে,
তা আমার অগোচর হয়ে পড়ে ছিলো কতকাল।
আমার বোধ আর জ্ঞানের মাঝে লেগে থাকা বৈপরীত্যরা,
এই সৃষ্টির শ্ৰী আমাকে উপভোগ করতে দেয়নি।
 বৈপরীত্যের এই সাহায্যকে আমি হারাতে চাই না, তাই
সৃষ্টি-অনাসৃষ্টির মাঝে আমি বৈপরীত্যের বাণী শুনে যাই।

©মাম্পি মল্লিক

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য