উত্তর কোথায়?

প্রতিশ্রুতি, যেন মুখ লুকিয়ে পালিয়ে যায়,
বলে আমাদের শাস্তি দিও না, আমরা নির্দোষ।
কাঠগোড়া ফাঁকা পড়ে থাকে, 
কাউকে টেনে তোলা যায় না তাতে।
বিচারকের আসন থেকে খালি বিদ্রুপের,
ছিটে এসে লাগে আন্দোলনকারীদের গায়ে।
অভিযোগ পরে থাকে আহত অবস্থায়।
দিন যায়, দিনলিপিতে দীর্ঘশ্বাস সাম্রাজ্য বিস্তার করে।
তবু, বিচার হয় না, ভবিষ্যতের ছবির কল্পনা,
সে যেন ভয়ের অপর রূপ হয়ে দাঁড়ায়।
পরীক্ষা আর পরীক্ষার ফল সবটাই ক্রমশ,
যেন দীর্ঘজীবি এক বিরক্তিকর অধ্যায়ের,
অংশ হয়ে দাঁড়ায়।

থামে না সূর্যদয় আর সূর্যাস্তের আনাগোনা।
অসুখের খবর প্রচারিত হয়,
সেসব কঠিন কথা, না চাইলেও শুনতে হয়,
বুঝতে হয়, জানতে হয়, খবর আর সামাজিকতার,
এই দুনিয়ায়। মৃত্যুর খবরও শোনা যায়,
বিচারকের টেবিল থেকে, আন্দোলনকারীদের 
সমস্ত পন্থা, সমস্ত উপায়।
কিন্তু, হায়! প্রত্যাশায় প্রত্যুত্তর মেলে না,
প্রশ্নের পাহাড়ের পাদদেশে চলে অভিযান,
পাহাড় চূড়ায় এক সোনালি আলো,
সারাক্ষন জ্বলে রয়।

©মাম্পি মল্লিক

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য